হচ্ছে না পে স্কেল তবে সরকারি চাকরিজীবীদের মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে সমন্বয় করে বেতন বৃদ্ধির খবর ২০২৩ ?

মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে সমন্বয় করে ২০২৩-২৪  অর্থ বছরের বেতন বৃদ্ধির সুখবর পেতে যাচ্ছেন  সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিরা।

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বৃদ্ধির খবর ২০২৩ ও সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা আসতে পারে ?

আগামী ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেটে সুখবর পেতে যাচ্ছেন সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিরা। মহার্ঘ ভাতার আদলে তাদের জন্য বেতন বৃদ্ধির (ইনক্রিমেন্ট) ঘোষণা আসতে পারে। মূল্যস্ফীতি মোকাবিলায় নির্ধারিত ৫ শতাংশের বার্ষিক ইনক্রিমেন্টের বাইরেও এক্সট্রা ইনক্রিমেন্ট পেয়ে যাবেন সরকারি চাকরিজীবীরা। এর পরিমাণ বেতনের ১০ থেকে ২০ শতাংশ থেকে পারে।


গুগল নিউজ হতে আপডেট ” নিউজ হতে আইবাস++ ও সরকারি নিউজের আপডেট সংগ্রহ করে নিতে পারেন।


সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে:

  • আগামী অর্থবছরের বাজেট বক্তব্যে সরকারী চাকরিজীবীদের বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা থাকছে।
  • উচ্চ মূল্যস্ফীতির কারণে দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতির কারণে নতুন পে স্কেল ২০২৩ এর দাবি তোলেন সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিরা ।
  • এমন প্রেক্ষাপটে আগামী বাজেটে তাদের জন্য মহার্ঘ্য ভাতা ঘোষণার ব্যপারে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় ছিলেন অর্থ বিভাগের কর্মকর্তারা।
  • জাতীয় বেতন স্কেল  ২০১৫ কার্যকর হওয়ার পর হতে এখন পর্যন্ত মুদ্রাস্ফীতির পরিমাণ প্রায় ৪০ শতাংশে দাঁড়িয়ে।

আরও জানুনঃ ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিদের জন্য মহার্ঘ ভাতা থাকছে না বিশেষ ইনক্রিমেন্ট ২০২৩ ?

  •  জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে প্রায় টাকার হিসেবে ৫ হাজারেরও বেশি।
  • ২০১৮ সালের সুপারিশ অনুসারে সরকারকে আপাতত তিনটি ‘বিশেষ ইনক্রিমেন্ট’ ও ‘নবম পে-কমিশন’ গঠনের নির্দেশনা দেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
  • বর্তমান বেতন স্কেলে টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাদ করায় নিম্ন বেতনভুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সংসার চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে।
  • সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবারের বরাদ্দ আওয়ামী লীগ গর্ভনমেন্টের টানা ৩য় মেয়াদের সমাপ্ত বাজেট। একারণে এটাকে নির্বাচনী বাজেটও জানানো যায়। এবারের বাজেটে ৮ বছর পর সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য নতুন কয়েকটি সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার ব্যপারে আলোচনা হচ্ছে।
  • অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বরাদ্দ ঘোষণার পর প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা পাওয়ার পর বেতন বাড়ানোর জন্য প্রচেষ্টা নেওয়া হবে। মূল্যস্ফীতির সঙ্গে তা সমন্বয় করে একটানা প্রক্রিয়া সমাপ্ত করে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে গেজেট জারি থেকে পারে।

আরও জানুনঃ ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে ৯ম পে স্কেল এবং মহার্ঘ ভাতা সহ ১১ দফা দাবি সরকারি কর্মচারীদের ?

  • অর্থ বিভাগের ইনফরমেশন অনুযায়ী, বর্তমানে নানারকম মন্ত্রণালয় ও বিভাগের আওতায় রাষ্ট্রীয় চাকরিজীবীর সর্বমোট পদসংখ্যা ১২.৪৬ লাখ। ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্টসহ তাদের বেতন-ভাতা বাবদ আগামী অর্থবছরের বাজেটে বরাদ্দ থাকতেছে ৭৭ হাজার কোটি টাকা। কিন্তু মোট পদের ভিতরে ২.৭০ লাখ পদ উজাড় রয়েছে। ফলে বেতন-ভাতায় বাজেটের পুরো অর্থ ব্যয় হবে না। চলমান অর্থবছরের বেতন-ভাতায় বাজেট ছিল ৭৪ হাজার ২৬৬ কোটি টাকা।
  • ২০১৫ সালে ঘোষণা করা পে-স্কেলে বলা আছে, সরকারী চাকরিজীবীদের বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি বা ইনক্রিমেন্টের হার হবে ৫ শতাংশ। তবে মূল্যস্ফীতির হার ৫ শতাংশের বেশি হলে সে অনুযায়ী ইনক্রিমেন্টের হারও বাড়বে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাব অনুযায়ী, গত এপ্রিলে মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯ দশমিক ২৪ শতাংশ। আর গত মে-এপ্রিল ১২ মাসের গড় মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

Reply

error: Content is protected !!