এমপিওভুক্ত স্কুল শিক্ষকরা কি কি অবসর ও পেনশন সুবিধা প্রাপ্য হয় ?

এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অবসর সুবিধার অর্থ প্রাপ্তির হিসাব, বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধা ?

এমপিও কলেজ শিক্ষকের বেতন ও পেনশন সুবিধা ?

ট্রাষ্টের তহবিল হইতে শিক্ষক ও কর্মচারীগণকে প্রদেয় আর্থিক সুবিধাদিসমূহ :

(১) কোন শিক্ষক বা কর্মচারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাকুরী হইতে অবসর গ্রহণ করিলে তিনি যত বৎসর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করিয়াছেন তত মাসের মূল বেতনের সমান  অর্থ একবারে প্রাপ্য হইবেন ।

(২) কোন শিক্ষক বা কর্মচারী চাকুরীকালীন সময়ে মৃত্যুবরণ করিলে তিনি যত বৎসর চাকুরী করিয়াছেন তত মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ তাহার পরিবার প্রাপ্য হইবে।

(৩) কোন বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করা হইলে উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক বা কর্মচারীগণ কেবলমাত্র যত বৎসর বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরীরত ছিলেন তত মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ এককালীন প্রাপ্য হইবেন ।

আরও জানুনঃ সর্বজনীন পেনশন পেতে থাকবে কোন হয়রানি, চালু হবে মুঠো ফোন অ্যাপ ? সর্বজনীন পেনশন ফান্ডের টাকা বিনিয়োগ হবে লাভজনক খাতে ?

(৪) কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হইতে চাকুরীচ্যুত শিক্ষক ও কর্মচারীগণ কেবলমাত্র ট্রাষ্ট তহবিলের চাঁদা হিসাবে তাহাদের বেতন হইতে কর্তনকৃত অর্থ ব্যাংকে সঞ্চিত মুনাফাসহ ফেরত পাইবেন।

(৫) কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাকুরী হইতে পদত্যাগকারী কোন শিক্ষক বা কর্মচারী তাহার পদত্যাগের তারিখ পর্যন্ত যত বৎসর চাকুরী করিয়াছেন তত মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ প্রাপ্য হইবেন।

(৬) এই প্রবিধানের উদ্দেশ্যে, কোন শিক্ষক বা কর্মচারীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাকুরীতে বিরতি থাকিলে উক্ত বিরতিকাল ব্যতিরেকে তাহার চাকুরীকাল গণনা করা হইবে।

(৭) কোন শিক্ষক বা কর্মচারী চাকুরীকালীন সময়ে দুর্ঘটনায় গুরুতরভাবে আহত হইলে অথবা কোন দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হইলে তাহার চিকিৎসার জন্য তাহার অনধিক দুই মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ তাহাকে প্রদান করা হইবে।

(৮) উপ-প্রবিধান (১) ও (২) এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, ১লা মে, ১৯৯৭ ইং তারিখের পূর্বে কোন শিক্ষক বা কর্মচারী চাকুরী হইতে অবসর গ্রহণ অথবা মৃত্যুবরণ করিয়া থাকিলে তিনি অথবা, ক্ষেত্রমত, • তাহার পরিবার ট্রাষ্ট তহবিলের চাঁদা হিসাবে উক্ত শিক্ষক বা কর্মচারীর বেতন হইতে কর্তনকৃত অর্থ ও উক্ত অর্থের উপর ব্যাংকে সঞ্চিত মুনাফা এবং তাহার মূল বেতন এর যোগফলের নিম্ন বর্ণিত হারে অর্থ এক কালীন প্রাপ্য হইবেন, যথা :-

(ক) ৪ ও ৫ নং বেতন স্কেলের শিক্ষক বা কর্মচারীর ক্ষেত্রে, ১০ গুণ, (খ) ৬ ও ৭ নং বেতন স্কেলের শিক্ষক বা কর্মচারীর ক্ষেত্রে, ১২ গুণ, (গ) ৮,৯ ও ১০ নং বেতন স্কেলের শিক্ষক বা কর্মচারীর ক্ষেত্রে, ১৫

গুণ;(ঘ) ১১, ১২, ১৩ ও ১৪ নং বেতন স্কেলের শিক্ষক বা কর্মচারীর ক্ষেত্রে, ১৮ গুণ, এবং (ঙ) ১৫, ১৬, ১৭, ১৮, ১৯ ও ২০ নং বেতন স্কেলের শিক্ষক বা কর্মচারীর ক্ষেত্রে, ২০ গুণ ।

ব্যাখ্যা : এই প্রবিধানের উদ্দেশ্যে- (১) “পরিবার” বলিতে শিক্ষক বা কর্মচারীর স্ত্রী বা স্বামী, পুত্র, কন্যা এবং উক্ত শিক্ষক বা কর্মচারীর প্রতি সম্পূর্ণ নির্ভরশীল পিতা, মাতা, অপ্রাপ্ত বয়স্ক ভাইও অবিবাহিত বোনকে বুঝাইবে; (২) “মূল বেতন” বলিতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক বা কর্মচারীর সর্বশেষ আহরিত মূল বেতন বুঝাইবে;

এমপিও কলেজ শিক্ষকের পেনশন সুবিধা কোন ফরমে আবেদন করবেন ?

আবেদনপত্রের ফরম :

৯।

(১) প্রবিধান ৭-এর উপ-প্রবিধান (১), (২), (৩) ও (৪) এর অধীন শিক্ষক ও কর্মচারীগণকে অর্থ প্রাপ্তির জন্য ফরম ‘ক’-তে আবেদন করিতে হইবে।

(২) প্রবিধান ৭ এর উপ-প্রবিধান (৫) এর অধীন অর্থ প্রাপ্তির জন্য মৃত শিক্ষক বা কর্মচারীর পরিবারের যে কোন সদস্যকে অন্যান্য সদস্য

কর্তৃক ক্ষমতা প্রাপ্ত হইয়া ফরম ‘খ’-তে আবেদন করিতে হইবে।

(৩) প্রবিধান ৭-এর উপ প্রবিধান (৭)-এর অধীন অর্থ প্রাপ্তির জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষক বা কর্মচারীকে ফরম ‘গ’তে আবেদন করিতে হইবে।

(৪) যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক বা কর্মচারী কর্মরত আছেন। অথবা ক্ষেত্রমত, সর্বশেষ চাকুরীতে নিয়োজিত ছিলেন সে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের মাধ্যমে আবেদনপত্র দাখিল করিতে হইবে।

এমপিও অবসর সুবিধার অর্থ প্রাপ্তির হিসাব, বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধা, বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধার জন্য যে কাগজপত্র প্রয়োজন।

বেসরকারি বা এমপিওভূক্ত শিক্ষকদের পেনশন , অবসর ও কল্যাণ সুবিধার জন্য যে কাগজপত্র ও তথ্যাদি প্রয়োজন ?

বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্ট

মৃত্যুবরণকারী শিক্ষক/ কর্মচারীদের আর্থিক প্রাপ্যতার আবেদনপত্রের ফরম।

১। শিক্ষক/ কর্মচারীর নাম

২। পিতা/স্বামীর নাম

৩। পদের নাম

৪। ইনডেক্স নম্বর

৫। ঠিকানা ও কোড নম্বর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম,

৬। বর্তমান ঠিকানা

৭। স্থায়ী টিকানা

৮। চাকুরীতে যোগদানের তারিখ

৯। জন্ম তারিখ

১০। মৃত্যুর সময় বেতনক্রম ও মূল বেতন

১১। মৃত্যুর তারিখ ও প্রমাণপত্র

১২। সর্বশেষ উত্তোলিত মোট বেতন

১৩। বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্টে সর্বশেষ চাঁদা প্রদানের তারিখ

১৪। মোট চাকুরীকাল

১৫। আবেদনকারীর নাম ও সম্পর্ক

১৬। উত্তরাধিকারের প্রত্যয়নপত্র

(সাকসেশন সার্টিফিকেট)

আমি এতদ্বারা ঘোষণা করিতেছি যে, উল্লিখিত তথ্য সঠিক ও নির্ভুল এবং আমি কোন তথ্য গোপন করি নাই। যদি কোন তথ্য অসত্য বা ভুল বলিয়া প্রমাণিত হয় তাহা হইলে আমি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্টকে এই আবেদনপত্রের প্রেক্ষিতে প্রাপ্ত সমুদয় অর্থ ফেরত দিতে বাধ্য থাকিব

প্রত্যয়নপত্র :

আবেদনকারীর স্বাক্ষর

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের স্বাক্ষর

ট্রাষ্টী বোর্ডের সিদ্ধান্ত

বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্ট এর আবেদন ফরম এর ওয়ার্ড কপি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্ট অবসরপ্রাপ্ত/পদত্যাগী/চাকুরীচ্যুত শিক্ষক/কর্মচারীদের আর্থিক প্রাপ্রতার আবেদনপত্রের ফরম

ফরম ‘ক’

প্রবিধান ৮ (১) দ্রষ্টব্য

বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্ট

অবসরপ্রাপ্ত/পদত্যাগী/চাকুরীচ্যুত শিক্ষক/কর্মচারীদের আর্থিক প্রাপ্রতার আবেদনপত্রের ফরম

১। শিক্ষক/কর্মচারীর নাম ২। পিতা/স্বামীর নাম

৩। পদের নাম

৪। ইনডেক্স নম্বর

৫। বর্তমান ঠিকানা

৬। স্থায়ী ঠিকানা

৭ । ঠিকানা ও কোড নম্বর, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম

৮। চাকুরীতে যোগদানের তারিখ

৯। জন্ম তারিখ

১০। অবসর গ্রহণ/পদত্যাগ/চাকুরীচ্যুতিকালে বেতনক্রম ও মূল বেতন

১১। সর্বশেষ উত্তোলিত মোট বেতন

১২। বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্টে সর্বশেষ চাঁদা প্রদানের তারিখ

১৩। অবসর গ্রহণ/পদত্যাগ/চাকুরীচ্যুতির তারিখ

১৪ । মোট চাকুরী কাল

আমি এতদ্বারা ঘোষণা করিতেছি যে, উল্লিখিত তথ্য সটিক ও নির্ভূল এবং আমি কোন তথ্য গোপন করি নাই। যদি কোন তথ্য অসত্য বা ভুল বলিয়া প্রমাণিত হয় তাহা হইলে আমি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী কল্যাণ ট্রাষ্টকে এই আবেদনপত্রের প্রেক্ষিতে প্রাপ্ত সমূদয় অর্থ ফেরত দিতে বাধ্য থাকিব।

প্রত্যয়নপত্র ‘ বর্ণিত তথ্যাদি সঠিক বলিয়া প্রত্যয়ন করিতেছি।

আবেদনকারীর স্বাক্ষর

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের স্বাক্ষর

অবসরপ্রাপ্ত/পদত্যাগী/চাকুরীচ্যুত শিক্ষক/কর্মচারীদের আর্থিক প্রাপ্রতার আবেদনপত্রের ফরম ডাউনলোড করে নিন।

“ফরম – খ”

[প্রবিধান-১৪ (২) দ্রষ্টব্য)

প্রবিধান ১০ এর উপ-প্রবিধান (১) ও (৩) এর অধীন অবসরপ্রাপ্ত অথবা উক্ত প্রবিধান এর উপ-প্রবিধান (৭) অনুযায়ী কার্যকর চাকুরীকাল ২৫ বৎসরের বেশী এমন পদত্যাগকারী

————-

১। আবেদনকারী শিক্ষক/কর্মচারীর নাম

২। পিতা/স্বামীর নাম

৩। মাতার নাম

৪। পদের নাম

৫। ইনডেক্স নম্বর

৬। বর্তমান ঠিকানা

৭। স্থায়ী ঠিকানা

৮। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম, ঠিকানা ও কোড নম্বর (এমপিও অনুসারে

৯। চাকুরীতে যোগদানের তারিখ

১০। প্রথম এমপিও ভুক্ত হইবার তারিখ

১১। জন্ম তারিখ

১২। অবসর গ্রহণ বা ইস্তেফাকালে বেতনক্রম

ও মূল বেতন

১৩। সর্বশেষ উত্তোলিত মূল বেতন

১৪। অবসর সুবিধা চাঁদা কর্তন শুরুর তারিখ

১৫। সর্বশেষ অবসর সুবিধা চাঁদা কর্তনের তারিখ

১৬। চাকুরী বিরতিকাল (বিনা বেতনে ছুটি, অননুমোদিত অনুপস্থিত, চাকুরী বিরতি ইত্যাদির যোগফল)

১৭। মোট কার্যকর চাকুরীকাল

১৮। ব্যাংকের নাম ও হিসাব নম্বর

আমি এতদ্বারা ঘোষণা করিতেছি যে, উল্লেখিত তথ্য সঠিক ও নির্ভুল এবং আমি কোন তথ্য গোপন করি নাই। যদি কোন তথ্য অসত্য বা ভুল প্রমাণিত হয় তাহা হইরে আমি বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী অবসর সুবিধা বোর্ডকে এই আবেদনপত্রের প্রেক্ষিতে প্রাপ্ত সমূদয় অর্থ ফেরত দিতে বাধ্য থাকিব

আবেদনকারীর স্বাক্ষর

প্রত্যয়নপত্র : বর্ণিত তথ্যাদি সঠিক বলিয়া প্রত্যয়ণ করিতেছি ।

বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধার জন্য যে কাগজপত্র প্রয়োজন ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষক কর্মচারিদের প্রবিধান ১০ এর উপ-প্রবিধান (২) ও (৩) এর অধীন অবসর সুবিধা প্রাপ্তির আবেদন ফরম।

“ফরম-গ”

[প্রবিধান-১৪(৩) দ্রষ্টব্য ]

প্রবিধান ১০ এর উপ-প্রবিধান (২) ও (৩) এর অধীন অবসর সুবিধা প্রাপ্তির জন্য শিক্ষক বা কর্মচারী মনোনীত ব্যক্তি কর্তৃক আবেদন ।

১) শিক্ষক/কর্মচারীর নাম : ২) পিতা/স্বামীর নাম

৩) মাতার নাম

৪) পদের নাম ৫) ইনডেক্স নম্বর

৬) বর্তমান ঠিকানা : ৭) স্থায়ী ঠিকানা

৮) শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম, ঠিকানা ও কোড নম্বর (এমপিও অনুসারে)

৯) চাকুরীতে যোগদানের তারিখ ১০) এমপিও ভূক্ত হইবার তারিখ

১১) জন্ম তারিখ

১২) মৃত্যুর সময় বেতনক্রম ও মূল বেতন

১৩) মৃত্যুর তারিখ ও প্রমাণপত্র

১৪) অবসর সুবিধা চাঁদা কর্তন শুরুর তারিখ

১৫) সর্বশেষ অবসর সুবিধা চাঁদা কর্তনের তারিখ

১৬) চাকুরী বিরতিকাল (বিনা বেতনে ছুটি, অননুমোদিত অনুপস্থিত, চাকুরী বিরতি ইত্যাদির যোগফল

১৭) মোট কার্যকর চাকুরীকাল

১৮) আবেদনকারীর নাম ও সম্পর্ক ৎ

১৯) উত্তরাধিকারের প্রত্যয়নপত্র (সাক্সেশন সার্টিফিকেট) :

২০) ব্যাংকের নাম ও হিসাব নম্বর

আমি এতদ্বারা ঘোষণা করিতেছি যে, উল্লেখিত তথ্য সঠিক ও নির্ভুল এবং কোন তথ্য গোপন করি নাই । যদি কোন তথ্য অসত্য বা ভুল প্রমাণিত হয় তাহা হইলে আমি বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারী অবসর সুবিধা বোর্ডকে এই আবেদনপত্রের প্রেক্ষিতে সমুদয় অর্থ ফেরত দিতে বাধ্য থাকিব।

প্রত্যয়নপত্র :

আবেদনকারীর স্বাক্ষর

(শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের নাম ও সীলসহ স্বাক্ষর)

বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধার জন্য যে কাগজপত্র প্রয়োজন ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

রিলেটেড ট্যাগঃ এমপিও অবসর সুবিধার অর্থ প্রাপ্তির হিসাব, বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধা, বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর ও কল্যাণ সুবিধার জন্য যে কাগজপত্র প্রয়োজন,

Reply

error: Content is protected !!