সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিদের মহার্ঘ ভাতার প্রস্তাব ২০২৩?

দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতির কারণে অর্থনৈতিক সংকটের কারণেও  ২০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার চিন্তাভাবনা আছে সরকারের। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে আগামী অর্থবছরের বরাদ্দ চূড়ান্ত করার বৈঠকে এ ব্যপারে প্রস্তাব উঠছে বলে অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। বৈঠকে আগামী অর্থবছরের জন্য ও ব্যয়ের প্রিপারেশন উপস্থাপন করার কথা।

গুগল নিউজ হতে আপডেট ” নিউজ হতে আইবাস++ ও সরকারি নিউজের আপডেট সংগ্রহ করে নিতে পারেন।


সাধারণত পাঁচ বছর অন্তর ১টি নিউ বেতন স্কেল ঘোষণা করার কথা। লেটেস্ট ২০১৫ সালের জুলাই মাসে ৮ মে স্কেল কার্যকর হয়। এর পর হতে প্রতিবছর জুলাইয়ে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ৫ শতাংশ হারে ইনক্রিমেন্ট পাচ্ছেন। অবশ্য মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় নিয়ে ইনক্রিমেন্ট বাড়ানোর প্রস্তাব ছিল বেতন কমিশনের। এ জন্য অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্বে ১টি শ্রেষ্ঠ পর্যায়ের কমিটিও করা হয়। তবুও ইনক্রিমেন্ট ৫ শতাংশই রয়ে গেছে।
সর্বশেষ বেতন স্কেল দেওয়ার আট বছর কেটে গেছে। ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের কারণে খাদ্যপণ্যসহ পণ্যমূল্য বেড়ে যাওয়ায় সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন সংগঠন নতুন পে স্কেলের দাবি তুলছে।

মহার্ঘ ভাতা ২০২৩ ? সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারিদের মহার্ঘ ভাতার প্রস্তাব ? ২০২৩-২০২৪ সালের মহার্ঘ ভাতা প্রস্তাব আসতে পারে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের পর।


অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বাজেটে নানারকম খাতে বাজেটের খসড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে। তবে মহার্ঘ ভাতা খাতে কোনো বাজেট রাখা হয়নি। বরাদ্দ চূড়ান্তকরণ-সংক্রান্ত প্রধানমন্ত্রীর সাথে আগামীকালের বৈঠকে এ ব্যপারে সিদ্ধান্ত হতে পারে।   Finance Minister আ হ ম মুস্তফা কামাল, Planning Minister এম এ মান্নান, Prime Minister’s economic adviser. মসিউর রহমান, প্রস্তুতি প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব ফাতিমা ইয়াসমিনসহ প্রধানমন্ত্রীর দফতর এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা।

আরও জানুনঃ Pay fixation increment bd 2023 & Pay fixation verification number বের করার উপায় ?


জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ইনফরমেশন অনুযায়ী, বাংলাদেশে সরকারি চাকরিজীবী প্রায় ১৪ লাখ। কিন্তু নানারকম করপোরেশন তার সাথে এমপিওভুক্ত শিক্ষকসহ এ সংখ্যা প্রায় ২২ লাখ। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থায় নানারকম খাতে খরচ সাশ্রয় স্টেপ গ্রহণ করেছে সরকার। চলতি অর্থবছরে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা খাতে বরাদ্দ ১ হাজার ৯৩ কোটি টাকা কমিয়ে সংশোধিত বাজেটে ৭৩ হাজার ১৭৩ কোটি টাকা রাখা হয়েছে। আগামী অর্থবছরে বেতন-ভাতা খাতে  সাতাত্তর (৭৭) হাজার কোটি টাকার প্রাক্কলনের খসড়া প্রস্তুত করা হয়েছে । মহার্ঘ প্রদান করলে এ অংক আরও বাড়বে।   

আরও জানুনঃ জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫  ইনক্রিমেন্ট বের করার নিয়ম ? এমসিএইচএফপি গনের ৩ (তিন) টি অগ্রিম ইনক্রিমেন্ট প্রাপ্তি ?

মূল্যস্ফীতির চাপ ও বকেয়া ভর্তুকির দায় মেটানোর বাড়তি খরচ মাথায় রেখে আগামী অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৫৯ হাজার ৯৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ের খসড়া করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়; যা আগামী অর্থবছরের জন্য প্রাক্কলিত সর্বমোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ১৫ দশমিক ২০ শতাংশ। চলমান ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি অর্থের বাজেট দেওয়া হয়।

Reply

error: Content is protected !!